[উবুন্টু টিউটরিয়াল] আলাদা পার্টিশন করে ধাপে ধাপে উবুন্টু ইন্সটল – (একটি সম্পূর্ণ টিউটরিয়ালের চেষ্টা)

Posted: জুলাই 7, 2010 in লিনাক্স
Tags: , , , , ,

লিখেছেনঃ জামাল উদ্দিন

উবুন্টু সাধারনত দুইভাবে ইন্সটল করা হয় – উবি দিয়ে উইন্ডোসের ভেতর ইন্সটল আর আরেকটি আলাদা পার্টিশন করে উবুন্টু ইন্সটল । দূরে বসে নতুন কেউ যদি আমাকে বলেন ” উবুন্টু কিভাবে ইন্সটল করব ? ” আমি তখন ভাবনাহীন উপায় উবি দিয়ে করতে বলে দেই । সাথে এ ও বলি , যদি উবুন্টুতে পুরোপুরি ট্রান্সফার হতে চান তবে ফ্রেশ ইন্সটলই ভালো , আর উবি দিয়ে ইন্সটল করলে ডিস্ক পারফর্‌ম্যান্সে সামান্য হেরফের হতে পারে । তাছাড়া নিয়মিত ব্যবহার করলে উবিন কোন সমাধানই না । তাই আলাদা পার্টিশন করে উবুন্টু ইন্সটলের টিউটরিয়ালটাই শুধু দিলাম । এই টিউটরিয়ালে অনেক স্ক্রীন-শট ব্যবহার করা হয়েছে – লোড হতে সময় নিতে পারে । ইচ্ছা করলে টিউটরিয়ালটা পিডিএফ ফরম্যাটে ডাউনলোড করে রাখতে পারেন ।

আমাদের কাজ দুইটা –

  • ১। উবুন্টুর জন্য পার্টিশন করা ।
  • ২। উবুন্টু ইন্সটল করা ।

উবুন্টুর জন্য দুইটা পার্টিশন লাগে , একটা উবুন্টূর ইন্সটলেশন পার্টিশন , আরেকটার নাম সোয়াপ পার্টিশন ( উইন্ডোসের ভার্‌চুয়াল মেমরির কাজ এখানে করে সোয়াপ , এতে সুবিধা হল আপনি যদি উবুন্টু আর লিনাক্স মিন্ট ইন্সটল দেন তবে তারা দুজনেই ব্যবহার করবে একই সোয়াপ । অন্যদিকে উইন্ডোসের প্রত্যেকটা ইন্সটলেশন আলাদা আলাদা ভার্‌চুয়াল মেমরি স্পেস ব্যবহার করবে – হার্‌ডডিস্কের কি নিদারুন অপচয় !)
উবুন্টু ইন্সটলের জন্য সর্‌বনিম্ন ৫ জিবির একটা পার্টিশন হলেই হয় । তবে কাজের সুবিধার জন্য আমার রিকমেন্ডেশন থাকবে ১০ জিবির ইন্সটলেশন পার্টিশন আর ১ জিবি সোয়াপ ।

আপনি যদি উইন্ডোসে থেকেই পার্টিশন করেন তবে শেষের একটা ড্রাইভ ( ধরুন G: আপনার হার্‌ডডিস্কের শেষ ড্রাইভ তবে G: কে ভেঙ্গে দুইটা ড্রাইভ বানান – একটা হবে ১০ জিবি , আরেকটা ১ জিবি । যেহেতু শেষ ড্রাইভ ভেঙ্গে আপনি উবুন্টুর জন্য যায়গা খালি করছেন বলে আমি ধরে নিচ্ছি এবং সে অনুসারেই এই টিউটরিয়ালটা লিখেছি তাই শেষ ড্রাইভ বিষয়টা অনেক গুরুত্বপূর্ণ )

চলুন কাজ শুরু করি –

  • প্রথমে আপনার বায়োস থেকে ফার্‌স্ট বুট ডিভাইস সিডি/ডিভিডি করে নিন ( করা না থাকলে ) । উবুন্টু সিডি ঢুকিয়ে রিস্টার্‌ট দিন । সিডি থেকে বুট হবে ।
  • আপনাকে ভাষা নির্‌বাচন করতে বলবে – ইংরেজী নির্‌বাচন করে এন্টার দিন ( বাংলা ও ব্যবহার করতে পারেন )
  • আপনাকে একটা মেন্যু দিবে এমনঃ
    Try ubuntu without any change to your computer
    Install Ubuntu
  • যারা যারা আগেই পার্টিশন করে নিয়ে নিয়েছেন তারা সিলেক্ট করবেন Install Ubuntu আর সোজা চলে যাবে এই টিউটরিয়ালের ইন্সটলেশন অংশে । আর যারা পার্টিশন করেননি তারা সিলেক্ট করবেন Try ubuntu without any change to your computer ।
  • তবে আমার রিকমেন্ডেশন থাকবে উবুন্টু থেকেই পার্টিশন করা । এটা সহজ এবং এতে ঝামেলাও কম হয় ।

পার্টিশন করার কাজঃ

(Try ubuntu without any change to your computer এর পর থেকে )

Try ubuntu without any change to your computer সিলেক্ট করার পর উবুন্টু লাইভ বুট হবে । এখান থেকে আপনি সব কাজ করতে পারবেন , কিন্তু আমাদের উদ্দেশ্য পার্টিশন করা ।

  • বুট হওয়ার পর উবুন্টুর ডেস্কটপ আসবে । সেখানে উপরে থাকা System মেন্যু তে গিয়ে Administration থেকে Partition Editor এ যান । লিনাক্স মিন্টে Mint মেন্যুতে All Application এ ক্লিক করুন । তারপর Administration থেকে Gparted এ যান।

01 [উবুন্টু টিউটরিয়াল] আলাদা পার্টিশন করে ধাপে ধাপে উবুন্টু ইন্সটল   (একটি সম্পূর্ণ টিউটরিয়ালের চেষ্টা) | Techtunes

নতুন পার্টিশন করার জন্যতো জায়গা দরকার , আর সেটা আসতে হবে আপনার আরেকটা পার্টিশন ভেঙ্গেই ! আগে পার্টিশন ভেঙ্গে নেই …

(পার্টিশন তিন রকমঃ প্রাইমারি , এক্সটেন্ডেড আর লজিক্যাল । উবুন্টুর ইন্সটলের ড্রাইভটা লজিক্যাল হলেও সমস্যা নাই । তবে আমরা কাজের সুবিধার জন্য শেষ পার্টিশন বেছে নিবো , এটাকেই পার্টিশন করব । )

  • Partition Editor খুলার পর পার্টিশনের লিস্ট দেখাবে । শেষ পার্টিশনটাতে রাইট বাটন ক্লিক করুন – Resize/Move নামে একটা অপশন পাবেন তাতে ক্লিক করুন । রিসাইজের উইন্ডো আসবে ।

02 [উবুন্টু টিউটরিয়াল] আলাদা পার্টিশন করে ধাপে ধাপে উবুন্টু ইন্সটল   (একটি সম্পূর্ণ টিউটরিয়ালের চেষ্টা) | Techtunes

  • এখানে ড্রাইভের এরোকে বামে টেনে প্রয়োজনমত কমিয়ে নিন , অথবা Free Space Following এ যতটুকু স্পেস কমাতে চান তা দিন । আমাদের দরকার ১০+১ = ১১ জিবি = ১১২৬৪ এম বি । এতটুকু কমিয়ে নিন । Resize/Move এ ক্লিক করে রিসাইজ করে নিন ।
  • এবার আমাদের খালি যায়গা ব্যবহার করে দুইটা নতুন পার্টিশন করব । খালি যায়গায় রাইট বাটন ক্লিক করে New এ ক্লিক করুন । নতুন পার্টিশন করার উইন্ডো আসবে ।

03 [উবুন্টু টিউটরিয়াল] আলাদা পার্টিশন করে ধাপে ধাপে উবুন্টু ইন্সটল   (একটি সম্পূর্ণ টিউটরিয়ালের চেষ্টা) | Techtunes

  • এখানে ডিফল্ট ভাবে পুরো স্পেস ( ১১ জিবি ) থাকে , টেনে ডানদিকে ১ জিবি খালি করুন বা Free space Following এ ১ জিবি = ১০২৪ মেগা করে নিন ।
    Create as এ Logical Partition থাকবে – পরিবর্‌তনের দরকার নেই ।
    File System থেকে ext3 সিলেক্ট করুন । ল্যাপটপ হলে ext4 ।
    Add বাটনে ক্লিক করে পার্টিশনটা এড করে নিন ।

04 [উবুন্টু টিউটরিয়াল] আলাদা পার্টিশন করে ধাপে ধাপে উবুন্টু ইন্সটল   (একটি সম্পূর্ণ টিউটরিয়ালের চেষ্টা) | Techtunes

  • বাকি খালি যায়গায় আবার উপরের মত নতুন পার্টিশন করুন । এখানে প্যারামিটার কিছু পরিবর্‌তন হবেঃ
  • Create as এ Logical ( একদম শেষ পার্টিশন হলে Primary করতে পারেন) সিলেক্ট করে নিন ।
  • File System এ সিলেক্ট করুন swap ।
  • Add বাটনে ক্লিক করে পার্টিশনটা যোগ করে দিন । ব্যস ! আমাদের পার্টিশনের কাজ শেষ!

উবুন্টু ইন্সটলেশনঃ

আশা করি আপনার এখন দুইটা পার্টিশন আছে । একটা ১০ জিবির ext3 পার্টিশন আরেকটা ১ জিবির swap . চলুন ইন্সটল করে নেই । যারা উবুন্টুতে পার্টিশন করেছেন তারা ডেস্কটপে থাকা “install” বাটনে ক্লিক কঅরে ইন্সটল চালু করেন । আর যারা উইন্ডোসে পার্‌টীশন করে “Install Ubuntu” দিয়েছেন তাদেরতো ইতোমধ্যে চালু হয়েই গিয়েছে ।

  • প্রথম উইন্ডোটা Location এর । Region এ সিলেক্ট করুন Asia … City এ সিলেক্ট করুন Dhaka । ( ধরে নিচ্ছি আপনি বাংলাদেশে এবং টাইম জোন ঢাকা , এখানে চিটাগাং ও পাবেন ! )
    Forward দিন ।

screenshot install [উবুন্টু টিউটরিয়াল] আলাদা পার্টিশন করে ধাপে ধাপে উবুন্টু ইন্সটল   (একটি সম্পূর্ণ টিউটরিয়ালের চেষ্টা) | Techtunes

  • আপনাকে ভাষা নির্‌বাচন করতে বলবে । ইংরেজী নির্‌বাচন করুন – বাংলা ব্যবহার করলে প্রথম বার উল্টা-পাল্টা লাগতে পারে ! Forward দিন ।

screenshot install 0 [উবুন্টু টিউটরিয়াল] আলাদা পার্টিশন করে ধাপে ধাপে উবুন্টু ইন্সটল   (একটি সম্পূর্ণ টিউটরিয়ালের চেষ্টা) | Techtunes

  • এর পর পাবেন Keyboard Layout । USA সাজেস্ট করা আছে । সেটাই রেখে দিন । ইচ্ছা করলে বাংলাদেশের কি-বোর্‌ডও ব্যবহার করতে পারেন । Forward দিন । পার্টিশন ম্যানেজার খুলবে । ধাপটা একটু সাবধানে করবেন ।

screenshot install 1 [উবুন্টু টিউটরিয়াল] আলাদা পার্টিশন করে ধাপে ধাপে উবুন্টু ইন্সটল   (একটি সম্পূর্ণ টিউটরিয়ালের চেষ্টা) | Techtunes

  • আপনাকে চারটা আপশন দিবে ( যদি উইন্ডোস আগে থেকেই থাকে )
    • Install them side , choosing between them all startup . ( এই অপশনে হার্‌ডডিস্ক ২ ভাগ হয়ে যাবে ! )
    • Use the entire disk ( পুরো ডিস্ক উবুন্টকে দিয়ে দিবে !! )
    • Use the largest continuous space ( সবচেয়ে বড় খালি যায়গা )
    • Specify pertition manually ( এটাই আমাদের দরকার । এটা সিলেক্ট করুন) ।
    • Forward দিন ।

screenshot install 2 [উবুন্টু টিউটরিয়াল] আলাদা পার্টিশন করে ধাপে ধাপে উবুন্টু ইন্সটল   (একটি সম্পূর্ণ টিউটরিয়ালের চেষ্টা) | Techtunes

  • সকল পার্টিশনের লিস্ট পাবেন । আমাদের ১০ জিবির পার্টিশনটা বের করে সিলেক্ট করুন । Edit Partition এ ক্লিক করুন । একটা নতুন উইন্ডো পাবেন ।

screenshot install 4 [উবুন্টু টিউটরিয়াল] আলাদা পার্টিশন করে ধাপে ধাপে উবুন্টু ইন্সটল   (একটি সম্পূর্ণ টিউটরিয়ালের চেষ্টা) | Techtunes

  • Use as এ ext3 না থাকলে ext3 Journaling file system করে দিন । ল্যাপটপ ব্যবহারকারীরা ext4 পার্টিশন বানালে ext৪ সিলেক্ট করবেন ।
  • Format the partition এর বক্সে ক্লিক করে দিন ।
  • Mount Point এ একটা ব্যাক স্ল্যাশ “/” সিলেক্ট করুন । (ইউনিক্স/লিনাক্স টাইপ সিস্টেমে “/” হল রুট পার্টিশন )
  • OK করে বেরিয়ে আসুন ।

05 [উবুন্টু টিউটরিয়াল] আলাদা পার্টিশন করে ধাপে ধাপে উবুন্টু ইন্সটল   (একটি সম্পূর্ণ টিউটরিয়ালের চেষ্টা) | Techtunes

যারা উবুন্টুতে পার্টিশন করেছেন আর swap পার্টিশন করেছেন তাদের এটা করার দরকার নাই । যারা উইন্ডোসে করেছেন তাদের ১ জিবির পার্টিশনটা swap করতে হবে ।

  • ১ জিবির পার্টিশনটা সিলেক্ট করে Edit Partition এ যান ।
  • Use as এ swap area সিলেক্ট করে নিন ।
  • Format the partition এর বক্সে ক্লিক করে দিন ।
  • OK করে বেরিয়ে আসুন ।

06 [উবুন্টু টিউটরিয়াল] আলাদা পার্টিশন করে ধাপে ধাপে উবুন্টু ইন্সটল   (একটি সম্পূর্ণ টিউটরিয়ালের চেষ্টা) | Techtunes

এর পরের ধাপ ব্যক্তিগত তথ্য নিয়ে –

    Whats your name এ আপনার পুরো নাম দিতে পারেন ।

  • What name do you want to use to login? এ আপনি যে নাম দিলে লগ-ইন করতে চান তা দিন । সব ছোট হাতের অক্ষরে …
  • পাসওয়ার্‌ডের পাশাপাশি দুটো ঘরে দুইবার আপনার পাসওয়ার্‌ড দিন । পাসওয়ার্‌ড কিন্তু খুবই জরুরী মনে রাখবেন ।

নীচের দুটো অপশন আছে –

  • Log in automatically & Require a password to log in . ডিফাল্ট ভাবে Require a password to log in দেয়া থাকে ।
  • Log in automatically দিলে স্টার্‌টের সময় ইউজারনেম পাসওয়ার্‌ড চাইবে না , সরাসরি উবুন্টু ডেস্কটপ চালু হয়ে যাবে ।
  • এর পরের ধাপে ইন্সটলেশন জানতে চাইবে উইন্ডোস থেকে কোণ কিছু ইম্পোর্‌ট করবে কিনা । এটা আপনার ইচ্ছা ।

screenshot install 6 [উবুন্টু টিউটরিয়াল] আলাদা পার্টিশন করে ধাপে ধাপে উবুন্টু ইন্সটল   (একটি সম্পূর্ণ টিউটরিয়ালের চেষ্টা) | Techtunes

  • এর পরের ধাপে উবুন্টু ইন্সটলেশনের সময় কি কি পরিবর্‌তন কঅরতে যাচ্ছে তার একটা সারাংশ দেখাবে । আপনার সিলেক্ট করা দুইটা ডিস্ক ফরম্যাট হচ্ছে কিনা খেয়াল করে দেখে নেবেন ।

screenshot install 7 [উবুন্টু টিউটরিয়াল] আলাদা পার্টিশন করে ধাপে ধাপে উবুন্টু ইন্সটল   (একটি সম্পূর্ণ টিউটরিয়ালের চেষ্টা) | Techtunes

Install বাটনে ক্লিক করুন । ইন্সটল শুরু হবে । মোটামুটি ১০/১৫ মিনিটের মত সময় লাগবে ইন্সটল হতে । ইন্সটল শেষ হলে আপনাকে ডিস্ক বের করে বলবে রিস্টার্‌ট দেয়ার জন্য ।

রিস্টার্‌ট দিয়ে অবশ্যই উবুন্টুতে লগ-ইন করবেন । আমি আবারো বলছি সরাসরি উবুন্টুতে লগ-ইন করবেন উইন্ডোসে না , এসময় উবুন্টু ইন্সটলেশন পরবর্‌তি কিছু কাজ করে , সেজন্য এটা জরুরী ।

ব্যস! উবুন্টু ইন্সটল হয়ে গেল । স্বাগতম উবুণ্টুর জগতে !!!!

লেখাটা পূর্বে আমার ওয়ার্ডপ্রেস ব্লগে প্রকাশিত ।

Source

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s